অনলাইনে ছবি বিক্রয় করে টাকা  কামান পর্ব-১

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় করুন – ফ্রিল্যান্সিং এ ক্যারিয়ার গড়ুন


ফটোগ্রাফি করে ছবি বিক্রি করার জন্য অনলাইনে ফটোগ্রাফারদের  অনেক সুযোগ আছে। আপনি শখের বসে যে ছবিটি তুলেছেন, এখন আপনি চাইলে শখ মেটানোর পাশাপাশি ছবি বিক্রির মাধ্যমে মোটামোটি ভালো একটা প্রফিট আয় করতে পারবেন। এখানে সবচেয়ে মজার বিষয় হলো এই কাজটি করার জন্য তেমন কোন অবিজ্ঞতার প্রয়োজন নাই। আপনার কাছে যদি একটা ভালো মানের স্মার্ট ফোন থাকে বা একটি ডি এস এল আর ক্যামেরা থাকে এবং আপনি টুকটাক ফোটো এডিট জানলেই অনলাইনে বিভিন্ন মার্কেটপ্লেস এ সেগুলো বিক্রি করতে পারবেন। 

আমরা প্রতিদিনই শখের বসে বিভিন্ন জিনিসের ছবি উঠিয়ে থাকি এবং সেগুলো বিভিন্ন সামাজিক সাইট যেমন ফেসবুক, টুইটার ইত্যদি সাইট গুলোতে আপলোড করে থাকি কিন্ত সেখান থেকে কোন বেনিফিট আসে না। অথচ আপনার কাছে যদি একটি ভালোমানের স্মার্টফোন থাকলে প্রকৃতির বিভিন্ন জিনিস এর ছবি তুলে সেগুলো অনলাইন মার্কেটপ্লেস এ খুব সহজেই বিক্রি করতে পারবেন।

আমরা আজকের পোস্টে ফটোগ্রাফি বা ছবি তুলার মাধ্যমে অনলাইনে আয় করার বিস্তারিত আলোচনা করবো৷ আপনি যদি ছবি তুলতে ভালোবাসেন ও ফটোগ্রাফার হোন,যদি ছবি তুলতে পছন্দ করেন, কোন ধরনের ছবি তুললে ইনকাম করতে পারবেন। কোথাই ছবি বিক্রি করবেন, ছবি বিক্রির জন্য কী কী করতে হবে, কোন ছবিতে কত টাকা পাবেন, কিভাবে টাকা হাতে পাবেন ইত্যাদি নিয়ে আলোচনা করবো।

কোন ধরনের ছবি তুলবেন?

প্রত্যেকটা জিনিস এর একটি ক্যাটাগরী থাকে। এক্ষেত্রেও ঠিক তেমনি। ফটোগ্রাফি করার জন্য বেশ কিছু ক্যাটায়গরি আছে যাদের ডিমান্ড অনেক বেশি। আপনি চাইলে নিচের ক্যাটাগরী গুলো নিয়ে কাজ করতে পারেন। এতে আপনি অনেক বেশি বেনিফিট পাবেন।

বিনোদন,আর্ট- চিত্রাঙ্কন,নেচার বা প্রকৃতি,ট্রাভেল বা ভ্রমন,ফুড(খাবার),কালচার বা লাইফস্টাইল ইত্যাদি

কিভাবে অনলাইনে ছবি বিক্রয় করে ইনকাম করবেন?


ইন্টারনেটে ছবি বিক্রয় করার জন্য আপনাকে কোন প্রকার বায়ার খুজতে হবে না। আপনি ঘরে বসেই আপনার শখের বসে উঠানো ছবি গুলো অনলাইনে বিভিন্ন মার্কেটপ্লেস বা স্টক ইমেজ সাইট গুলোতে বিক্রয় করতে পারবেন। এর জন্য আপনাকে স্টক ইমেজ সাইট গুলোতে ২/১ টি একাউন্ট করতে হবে। এবং সেখানে আপনার কোয়ালিটি সম্পূর্ন ছবি গুলো আপলোড করতে হবে৷ আপনার আপলোডকৃত ছবিগুলো তারা যাচাই বাছাই করার পর  আপনার প্রফাইল অনুমোদিত হবে তখন আপনি ছবি আপলোড করতে পারবেন। 


প্রশ্ন ছবি আপলোড করার সাথে সাথে কি আমার ছবি  লোকজন কিনবে? উত্তর না । কারন ছবি আপলোড করার পর স্টক ইমেজ সাইট গুলো আপনার ছবি যাচাই বাছাই করে ভালো মনে হলে অনুমোদন দিবে তখন সবাই আপনার ছবি দেখতে পারবে এবং কারো পছন্দ হলে কিনবে। এ ক্ষেত্র আপনার বিক্রয়কৃত ছবির কিছু অংশ আপনি পাবেন।

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে কত টাকা আয় করা যায়?

অনেকেরই মাথাই একটা প্রশ্ন ঘুরছে। অনলাইনে ছবি বিক্রি করে কত টাকা আয় করা যায়? আপনি ছবি বিক্রি করে কত টাকা আয় করতে পারবেন এটা সম্পূর্ণ আপনার নিজের ছবির কোয়ালিটর উপর নির্ভর করে। আপনার ছবির কোয়ালিটি ভালো হয়। ক্রেতা যদি আপনার ছবির উপর আকৃষ্ট হয় বেশি ইনকাম হবে। তবে এটা জেনে রাখা ভালো যে আপনার ছবি বিক্রির পুরো টাকা আপনি হাতে পাবেন না। আপনার বিক্রয়কৃত ছবির ২০-৩০% আপনার একাউন্টে জমা হবে এবং ৭০-৮০% যেই ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে আপনার ছবিটি বিক্রি করছেন সেই ওয়েব সাইট এর থাকবে। ছবি বিক্রিয় বিষয়টি সম্পূর্ন কমিশন ভিত্তিক। আপনি জেনে খুশি হবেন যে আপনার ১ টি ছবি যদি ১০০ জন ক্রেতা কিনে থাকে তবে আপনি ১০০ জন ক্রেতার থেকেই কমিশন পাবেন।

ছবি কোথাই বিক্রি করবেন?

আমি এখন ভালো মানের ফোটোগ্রাফার। আমার কাছে অনেক কোয়ালিটি সম্পূর্ন ছবি আছে। কিন্তু কোথায় বিক্রি করবো? হ্যাঁ আপনাদের কথা চিন্তা করে আজ ছবি ব্রিক্রির ৫ টি জনপ্রিয় মার্কেটপ্লেস এর সাথে পরিচয় করে দেবো। যেখান থেকে আপনারা খুব সহজেই ফোটোগ্রাফি করে ছবি বিক্রির মাধ্যমে আয় করতে পারবেন।


১। সাটারস্টক - Shutterstock.Com

২। ফটোলিয়া - Fotolia.Com

৩। গেটি ইমেইজ - GettyImages.Com

৪। আইস্টক ফটো - iStockPhoto.Com

৫। ড্রিমসটাইম - Dreamstime.Com

কিভাবে স্টক প্রোফাইল Approve করবেন?

ছবি বিক্রিয় করার জন্য একটি অন্যতম ধাপ হলো স্টক প্রোফাইল এপ্রুভ করানো। যদি আপনার স্টক প্রোফাইল এপ্রুভ না হয় তবে হাজার হাজার ছবি তুলে কোন লাভ হবে না। স্টক প্রোফাইল Approve করানো কোন কঠিন কাজ না। উপরের ৫ টি মার্কেটপ্লেস এর যে কোন একটিতে ফ্রি একাউন্ট করে ভালো মানের ছবি আপলোড করুন। মনে রাখবেন ছবির কোয়ালিটি এবং পিক্সেল যেন অনেক ভালো মানের হয়। যদি সব কিছু ঠিক থাকে তাহলে এপ্রুভ হবে এবং এর পর ভালো মানের ছবি আপলোড করার পর তারা রিভিউ করে বিক্রয় এর উপযোগী করে দিবে।



Previous Post
Next Post

post written by:

0 Comments: