DSLR কে টক্কর দিতে লঞ্চ হল Vivo X60, Vivo X60 Pro, ও Vivo X60 Pro+

 

Vivo X60, Vivo X60 Pro, এবং Vivo X60 Pro+

Vivo X60, Vivo X60 Pro, এবং Vivo X60 Pro+

ভিভো আজ ভারতে লঞ্চ করলো Vivo X60 সিরিজ। এই সিরিজে তিনটি ফোন আছে Vivo X60, Vivo X60 Pro, এবং Vivo X60 Pro+। এই তিনটি ফোনের মূল আকর্ষণ অবশ্যই এদের ক্যামেরা সিস্টেম। ভিভো এই ফোনগুলির ক্যামেরা পারফরম্যান্স উন্নত করতে Zeiss এর সাথে হাত মিলিয়েছে। ভিভো এক্স ৬০ সিরিজে আছে গিম্বল স্টেবিলাইজেশন ২.০ (Gimbal Stabilisation 2.0) সহ ট্রিপল ও কোয়াড ক্যামেরা সেটআপ। আবার এই সিরিজের Vivo X60, Vivo X60 Pro ফোনে পাওয়া যাবে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮৭০ প্রসেসর। এছাড়া স্ন্যাপড্রাগন ৮৮৮ প্রসেসরের সাথে লঞ্চ হয়েছে Vivo X60 Pro+। এই ফোনগুলি আগেই চীনের মার্কেটে পা রেখেছিল।

Vivo X60, Vivo X60 Pro, এবং Vivo X60 Pro+ এর দাম 

ভারতে ভিভো এক্স ৬০ এর দাম শুরু হয়েছে ৩৭,৯৯০ টাকা থেকে। ফোনটির ৮ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজের এই মূল্য রাখা হয়েছে। আবার এর ১২ জিবি র‌্যাম ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজের দাম পড়বে ৪১,৯৯০ টাকা। ফোনটি মিডনাইট ব্ল্যাক এবং শিমার ব্লু কালারে পাওয়া যাবে।

আবার ভিভো এক্স ৬০ প্রো ১২ জিবি র‌্যাম ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজ সহ এসেছে। এর দাম ৪৯,৯৯০ টাকা। Vivo X60 এর মত এই ফোনটিও একই কালার অপশনে পাওয়া যাবে।

এদিকে ভিভো এক্স৬০ প্রো প্লাস এর দাম রাখা হয়েছে ৬৯,৯৯০ টাকা। এই এই ফোনটি ১২ জিবি র‌্যাম ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজ সহ কেনা যাবে। ফোনটি দুটি রঙে উপলব্ধ – ভেগান লেদার, এম্পেরর ব্লু।

আজ থেকে ভারতে Vivo X60 সিরিজের প্রি-অর্ডার শুরু হচ্ছে। Vivo India E-store, Amazon.in, Flipkart সহ অন্যান্য ই-কমার্স সাইট ও রিটেল সাইট থেকে ফোনগুলি প্রি-অর্ডার করা যাবে। আগামী ২ এপ্রিল থেকে এদের বিক্রি শুরু হবে।

Vivo X60, Vivo X60 Pro এর স্পেসিফিকেশন

ভিভো এক্স৬০ ও ভিভো এক্স ৬০ প্রো ফোনে আছে কর্নিং গরিলা গ্লাস ৬ সহ ৬.৫৬ ইঞ্চির ফুলএইচডি প্লাস (১০৮০x২৩৭৬ পিক্সেল) E3  অ্যামোলেড ডিসপ্লে। এই ডিসপ্লে এসেছে ১২০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট, ১৯.৮:৯ আসপেক্ট রেশিও, HDR10+ সার্টিফিকেশন ও ইন ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর সহ। দুটি ফোনেই ব্যবহার করা হয়েছে স্ন্যাপড্রাগন ৮৭০ প্রসেসর।

আবার Vivo X60 এবং Vivo X60 Pro পাওয়া যাবে ১২ জিবি পর্যন্ত LPDDR5 র‌্যাম ও ২৫৬ জিবি পর্যন্ত UFS 3.1 স্টোরেজ সহ। মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে এদের স্টোরেজ বাড়ানো যাবেনা। আবার এই ফোন দুটিতে পাওয়া যাবে ৩৩ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং। যদিও ভিভো এক্স ৬০ ও ভিভো এক্স৬০ প্রো এর ব্যাটারি ক্যাপাসিটি আলাদা। এই দুই ফোনে আছে যথাক্রমে ৪,৩০০ এমএএইচ ও ৪,২০০ এমএএইচ ব্যাটারি।

দুটি ফোনের ডিসপ্লের পাঞ্চ হোল কাটআউটের মধ্যে ৩২ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা (এফ/২.৪৫ অ্যাপারচার) দেওয়া হয়েছে। আবার Vivo X60 এবং Vivo X60 Pro ফোনের পিছনে ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ বর্তমান। এই ক্যামেরাগুলি হল ৪৮ মেগাপিক্সেল Sony IMX 598 প্রাইমারি সেন্সর, ১৩ মেগাপিক্সেল আলট্রা ওয়াইড লেন্স ও ১৩ মেগাপিক্সেল পোর্ট্রেট লেন্স। পার্থক্য বলতে প্রো ভার্সনের প্রাইমারি ক্যামেরায় এফ/১.৪৮ অ্যাপারচার সহ Gimbal Stabilisation 2.0 অতিরিক্ত উপলব্ধ।

দুটি ফোনই অ্যান্ড্রয়েড ১১ বেসড ফ্যানটাচ ওএস ১১ কাস্টম ওএসে চলবে। Vivo X60 এর ওজন ১৭৬ গ্রাম, আবার Pro মডেলের ওজন ১৭৭ গ্রাম।

Vivo X60 Pro+ এর স্পেসিফিকেশন

ভিভো এক্স ৬০ প্রো প্লাস ফোনটি অ্যান্ড্রয়েড ১১ বেসড ফ্যানটাচ ওএস ১১ কাস্টম ওএসে চলবে। এর ফিচারের মধ্যে আছে ৬.৫৬ ইঞ্চির ফুলএইচডি প্লাস (১০৮০x২৩৭৬ পিক্সেল) অ্যামোলেড ডিসপ্লে। এই ডিসপ্লের রিফ্রেশ রেট ১২০ হার্টজ, টাচ স্যাম্পেলিং রেট ২৪০ হার্টজ, পিক্সেল ডেন্সিটি ৩৯৮ পিপিআই, স্ক্রিন টু বডি রেশিও ৯২.৭ শতাংশ। এই ডিসপ্লে এসেছে HDR10+ সাপোর্ট ও ১৩০০ নিটস ব্রাইটনেস সহ। আবার ডিসপ্লের ওপর আছে Schott Xensation Up প্রোটেকশন।

Vivo X60 Pro+ ফোনে আছে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮৮৮ প্রসেসর। ফোনটি ১২ জিবি র‌্যাম (LPDDR5) ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজ (UFS 3.1) সহ পাওয়া যাবে। এই ফোনে Virtual RAM ফিচার আছে, যা প্রয়োজনে ফোনের স্টোরেজ কে র‌্যাম হিসাবে ব্যবহার করতে পারে। মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে এর স্টোরেজ বাড়ানো যাবেনা।

Vivo X60 Pro+ ফোনটির প্রধান ইউএসপি এর ক্যামেরা। এই ফোনে Zeiss T* কোটিং রয়েছে যা ক্যামেরার লেন্সের মাধ্যমে আলো সঞ্চালনের ক্ষেত্রে সহায়তা করে। এই ফোনের পিছনে কোয়াড ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে। এর প্রাইমারি ক্যামেরাটি হল ৪-অ্যাক্সিস OIS, ১১৪° আল্ট্রাওয়াইড অ্যাঙ্গেল, ১৪ মিমি ফোকাল লেংথ সহ ৪৮ মেগাপিক্সেলের (এফ/২.২) Sony IMX598 সেন্সর৷

এছাড়াও অন্য তিনটি ক্যামেরা হল ৫০ মেগাপিক্সেলের (এফ/১.৫৭) Samsung GN1 সেন্সর, ৫০ মিমি ফোকাল লেংথ ৩২ মেগাপিক্সেলের (এফ/২.০৮) পোর্ট্রেট লেন্স ও ৮ মেগাপিক্সেলের (এফ/৩.৪) পেরিস্কোপ ক্যামেরা যা OIS ৫x জুম এবং ৬০x সুপার জুম সাপোর্ট করে৷ ভিভো বলেছে, চারটি ক্যামেরায় এএফ অটোফোকাস এবং ভিডিও স্ট্যাবিলাইজেশন সাপোর্ট করে৷ এতে 8K ভিডিও রেকর্ডিং করার সুবিধা পাওয়া যাবে৷ সেলফি ও ভিডিও চ্যাটের জন্য ফোনের সামনে রয়েছে ৩২ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা।

ভিভো এক্স ৬০ প্রো প্লাস ৫৫ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট ও ৪,২০০ এমএএইচ ব্যাটারি সহ এসেছে। চার্জিংয়ের জন্য আছে ইউএসবি টাইপ সি পোর্ট। এছাড়াও ফোনটির অন্যান্য ফিচারের মধ্যে পাওয়া যাবে ইন-ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর, ফেস আনলক, এনএফসি। এর ওজন ১৯১ গ্রাম।

Thanks For You Reading The Post We are very happy for you to come to our site. Our Website Domain name https://www.techdunia.info/.
নবীনতর পোস্টসমূহ নবীনতর পোস্টসমূহ পুরাতন পোস্টসমূহ পুরাতন পোস্টসমূহ

আরও পোস্ট

মন্তব্যসমূহ

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন